admin

স্কুলের গ্রীষ্মকালীন অবকাশ ও ঈদুল আযহার ছুটি সংক্রান্ত নোটিশ

গ্রীষ্মকালীন অবকাশ ও ঈদুল আযহার ছুটি উপলক্ষে আগামী ০২ জুলাই (শনিবার) ২০২২ থেকে ১৮ জুলাই (সোমবার) ২০২২ তারিখ পর্যন্ত স্কুল বন্ধ থাকবে। ১৯ জুলাই (মঙ্গলবার) ২০২২ থেকে যথারীতি স্কুলের সকল কার্যক্রম পুনরায় শুরু হবে ইন-শা-আল্লাহ। 

মা আসসালামাহ,

এস সি ডি এ্যাডমিন

স্মারক নং: SCD_20220601

কোভিড-১৯ সতর্কতা (জুন ২০২২)

আসসালামু আলাইকুম, সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য। সালাত ও সালাম রাসুলের (ﷺ) উপর।

বর্তমানে কোভিড-১৯ সংক্রমণ বাড়তে শুরু করায় সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারি কিছু দিক-নির্দেশনার আলোকে এস.সি.ডি স্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের জন্য কিছু দিক-নির্দেশনা প্রদান করছে।

আমরা আশা করি সকল শিক্ষার্থীরা নিন্মোক্ত নির্দেশনাগুলো যথাযথভাবে মেনে স্কুল কার্যক্রম চালু রাখতে সহযোগিতা করবেন।

নির্দেশনাসমূহ:

১) শিক্ষার্থীরা অবশ্যই মাস্ক (সম্ভব হলে কাপড়ের) পরিধান করে স্কুল প্রাঙ্গণে প্রবেশ করবেন। আধোয়া/অপরিস্কার মাস্ক পরিধান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

২) স্কুলে প্রবেশের পর নিচ তলায় নির্ধারিত স্থানে সাবান ও পানি দিয়ে ভালোভাবে হাত ধুয়ে / বা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মাধ্যমে হাত পরিস্কার করে ক্লাস রুমে প্রবেশ করতে হবে।

৩) সকল শিক্ষার্থী অবশ্যই অতিরিক্ত ১টি মাস্ক নিজের সাথে রাখবে।

৪) প্রত্যেক শিক্ষার্থী অবশ্যই নিজ নিজ পানির বোতল, ফ্লাস্ক ইত্যাদি সাথে করে নিয়ে আসবে। একজনের পানির বোতল অন্যজন ব্যবহার করবে না। পানির প্রয়োজন হলে স্কুলের ফিল্টার থেকে রিফিল করে নিবে।

৫) বাসা থেকে টিফিন বক্স ও চামচ নিয়ে আসবে। যার যার ব্যক্তিগত টিফিন বক্সে স্কুলের টিফিন গ্রহন করবে। স্কুলের বাটি বা চামচ ব্যবহার করে টিফিন খাবে না।

৬) শিক্ষার্থীরা সার্বক্ষণিক মাস্ক পরিধান করে থাকবে।

৭) স্কুলে প্রবেশের পর প্রত্যেক শিক্ষার্থী কিছুটা দুরত্ব বজায় রাখবে। একে অপরের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলবে।

৮) রুটিন অনুযায়ী বই, খাতা, ডায়েরী, কলম ও পেন্সিল সহ প্রয়োজনীয় সব কিছু সাথে নিয়ে আসবে। একে অপরের শিক্ষা উপকরণ ব্যবহার বা আদান-প্রদান করবে না।

৯) ক্লাস শেষে ক্লাসরুমে / স্কুলের নিচতলায় বসে গল্প করা বা খেলাধুলা করা যাবে না।

১০) ক্লাস চলাকালীন কেউ অসুস্থ অনুভব করলে সাথে সাথে অফিসে উপস্থিত প্রশাসনিক দায়িত্বপ্রাপ্তদের জানাতে হবে।

১১) জ্বর, সর্দি, কাশি বা কোভিডের লক্ষণের সাথে মিলে যায় এমন কোনো শারীরিক অসুস্থতা অনুভব করলে স্কুলে আসা থেকে বিরত থাকতে হবে।

১২) বাসায় ফিরে গিয়ে নিয়ম অনুযায়ী প্রত্যেকে নিজের হাতমুখ, পরিধেয় বস্ত্র ও মাস্ক ভালো করে সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে পরিস্কার করে নিবে।

১৩) সকলে সাবধান থেকে নিজেকে, পরিবারের আপনজন ও অন্যকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করতে হবে।

১৪) কোভিড-১৯ মহামারি থেকে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’য়ালা যেন আমাদের সবাইকে সম্পূর্ণ মুক্ত রাখে। আমীন।

অনুরোধক্রমে,

অধ্যক্ষ

স্কুল ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রাথমিক স্তুরে গ্রীষ্মকালীন ও ঈদ-উল-আযহার ছুটি

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামীকাল ২৮ জুন ২০২২ (মঙ্গলবার) থেকে এস.সি.ডি স্কুলের প্রাথমিক স্তুরের (১ম-৫ম শ্রেণি) জেনারেল বিষয়ের ক্লাসসমূহ বন্ধ থাকবে।

নার্সারি, কেজি ও ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণির ক্লাস যথারীতি আগামী ৫ জুলাই ২০২২ পর্যন্ত চলবে।

১ম-৭ম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের আল-কুরআন ও আরবি ভাষা শিক্ষা ক্লাস রুটিন অনুযায়ী চলবে আগামী ৫ জুলাই ২০২২ পর্যন্ত। অর্থাৎ, ২৮/৬/২০২২ – ৫/৭/২০২২ পর্যন্ত ১ম-৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা বর্তমান রুটিন অনুযায়ী শুধুমাত্র আল-কুরআন ও আরবি ভাষা শিক্ষা ক্লাস করার পর টিফিন নিয়ে বাসায় চলে যাবে। ৬ষ্ঠ-১০ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা টিফিনের পর যথারীতি রুটিন অনুযায়ী জেনারেল বিষয়ের ক্লাসসমূহ করবে (৫ জুলাই ২০২২ পর্যন্ত)।

আগামী ৬ জুলাই ২০২২ থেকে ১৮ জুলাই ২০২২ পর্যন্ত এস.সি.ডি মোহাম্মদপুর শাখার সকল ক্লাস এবং কার্যক্রম ঈদ-উল-আযহার ছুটি উপলক্ষে বন্ধ থাকবে ইন-শা-আল্লাহ্‌।

মা আসসালামাহ
অধ্যক্ষ
এস সি ডি (মোহাম্মদপুর শাখা)

এস.সি.ডি অভিভাবকদের জন্য মাসিক আলোচনা

আসসালামুআলাইকুম,

আগামী ২৪ জুন ২০২২ (শুক্রবার) থেকে প্রতি মাসের শেষ শুক্রবার, সকাল ১০:৩০ থেকে ১১:৩০ পর্যন্ত এস.সি.ডি মোহাম্মদপুর শাখায় সকল অভিভাবকদের জন্য নাসীহামূলক ধারাবাহিক আলোচনা শুরু হতে যাচ্ছে, ইন-শা-আল্লাহ।

বিষয়: “নিজেকে ও নিজের পরিবারকে রক্ষা করুন”।

বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন
মো. এনামুল হক
কনভেনার, এস.সি.ডি ম্যানেজিং কমিটি
চেয়ারম্যান, আই.সি.ডি

এস.সি.ডি’র সকল অভিভাবক উক্ত আলোচনায় আমন্ত্রিত। সন্তানের দ্বীন শিক্ষার পাশাপাশি নিজের পরিবার তথা ব্যক্তিগত জীবনে ইসলামের উপর চলার জন্য উক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করা একান্ত জরুরী।

ঠিকানা:
এস.সি.ডি (মোহাম্মদপুর শাখা)
বাড়ি ৫৪/এ, রোড-১২, শেখেরটেক
মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

বসার স্থান:
মহিলা: ৩য় ও ৪র্থ তলা (লিফট-২ ও ৩)
পুরুষ: ৭ম, ৮ম তলা (লিফট-৬)

মোবাইল: ০১৭০৫-৬৭৯৬০৩

স্কুল ইউনিফর্ম ও দেরিতে স্কুলে উপস্থিত হওয়া 

السلام عليكم ورحمة الله وبركاته

প্রিয় অভিভাবকবৃন্দ, সম্প্রতি আমরা লক্ষ্য করেছি যে, কিছু শিক্ষার্থী প্রায় প্রতিদিনই দেরি করে স্কুলে উপস্থিত হচ্ছে। দেরিতে উপস্থিত হওয়া শিক্ষার্থীদের ক্লাসে অংশগ্রহণের সুযোগ দিলে একদিকে যেমন পাঠদানে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটে অন্যদিকে সময়ানুবর্তি হওয়ার গুরুত্ব ধীরে ধীরে হারিয়ে যায়।। এছাড়া, একাধিকবার সতর্ক করার পরও অনেক শিক্ষার্থী স্কুল ইউনিফর্মের বাইরে ভিন্ন রঙের বা ডিজাইনের জামা, জুতা, মোজা ইত্যাদি পরিধান করে স্কুলে আসছেন, যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

তাই পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ঈদ-উল-আযহার ছুটির পর (১৯ জুলাই ২০২২) থেকে সকল শিক্ষার্থী অবশ্যই ক্লাস শুরুর নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই স্কুলে উপস্থিত থাকবেন এবং পরিপূর্ণ স্কুল ড্রেস পরিধান করে আসবেন। অন্যথায় নিয়ম ভঙ্গকারী শিক্ষার্থীদের স্কুলে প্রবেশ অথবা ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না। যারা দেরি করে স্কুলে আসবেন, তারা স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে ফোন করে গেট খোলার জন্য বা ক্লাসে অংশগ্রহণ করার জন্য সুপারিশ করা থেকে বিরত থাকবেন ইন-শা-আল্লাহ।

একজন ভালো মুসলিম হওয়ার জন্য সময়ানুবর্তি হওয়া এবং প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নির্ধারিত সকল নির্দেশনা মেনে চলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই শিক্ষার্থীদের তারবিয়ার অংশ হিসেবে উপরোক্ত পদক্ষেপগুলো গ্রহণ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে সকলের আন্তরিক সহযোগিতা একান্ত কাম্য।

অনুরোধক্রমে,

অধ্যক্ষ

এস.সি.ডি (মোহাম্মদপুর শাখা)

“জ্ঞান অর্জনের আদব” বইটি সংগ্রহ সংক্রান্ত নোটিস

আসসালামুআলাইকুম,

৫ম থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত এস.সি.ডি’র সকল শিক্ষার্থীকে “জ্ঞান অর্জনের আদব” বইটি সংগ্রহ করার জন্য বিশেষভাবে নির্দেশ প্রদান করা হচ্ছে। বইটির মূল লেখক “বকর ইবন আব্দুল্লাহ আবু যাইদ”, অনুবাদ করেছেন “উস্তাদ আলমগীর কবির” এবং বইটির অনুবাদ সম্পাদনা করেছেন “ড. আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া”। বইটি প্রকাশিত হয়েছে স্কুল ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট থেকে।

ইসলামি জ্ঞান অন্বেষণকারী প্রতিটি মুসলিমের জন্য এ বইটি অবশ্যই পঠনীয়। এস.সি.ডি’র শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি আমরা অনুরোধ করবো অভিভাবকবৃন্দ বইটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত গভীর মনোযোগ দিয়ে পড়বেন এবং এই বইয়ে উল্লিখিত প্রতিটি বিষয় ব্যক্তিগত তথা পারিবারিক জীবনে বাস্তবায়ন করবেন, ইন-শা-আল্লাহ।

এছাড়া নার্সারি থেকে ৪র্থ শ্রেণির অভিভাবকদেরকেও বইটি সংগ্রহ করা এবং শিক্ষার্থীদের জন্য উপযুক্ত অংশগুলো পড়ে শোনানোর জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

২০২২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এই বইটির উপর শিক্ষার্থীদের মধ্যে কুইজ প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হবে ইন-শা-আল্লাহ।

বইটির নির্ধারিত মূল্য: ১০০ টাকা।

অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ

আসসালামুআলাইকুম,

আগামী ১২ জুন ২০২২ থেকে অনুষ্ঠিতব্য অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার ফি বাবদ ৩০০ টাকা এবং জুন ২০২২-এর বেতনসহ পূর্বের বকেয়া বেতন (যদি থাকে) পরিশোধ সাপেক্ষে “প্রবেশপত্র” সংগ্রহ করার জন্য কেজি থেকে ১০ম শ্রেণির সকল অভিভাববককে বিনীত অনুরোধ করা যাচ্ছে।

মা আসসালামাহ,

এস.সি.ডি এডমিন

শিক্ষা উপকরণের বাইরে অপ্রয়োজনীয় জিনিস স্কুলে আনা

আসসালামুআলাইকুম,

সাম্প্রতিক সময়ে আমরা শিক্ষার্থীদের ব্যাগ চেক করে দেখতে পেয়েছি যে, অনেকেই শিক্ষা উপকরণের বাইরে অপ্রয়োজনীয় জিনিস স্কুলে আনছে, যা স্কুলের নীতিমালার সাথে সাংঘর্ষিক। এছাড়া কিছু শিক্ষার্থী দামী ঘড়ি বা দামী কলম ইত্যাদি নিয়েও স্কুলে আসছে, যা দ্বারা অন্যান্য শিক্ষার্থীরা প্রভাবিত হচ্ছে এবং ফলশ্রুতিতে তাদের বাবা/মা ও অভিভাবককে একই ধরনের ঘড়ি/কলম ইত্যাদি কিনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরছে।

এমতাবস্থায়, শিক্ষা উপকরণের বাইরে শিক্ষার্থীরা অতিরিক্ত কোনো জিনিস স্কুলে আনলে তা বাজেয়াপ্ত করা হতে পারে বলে সতর্ক করা হচ্ছে। এছাড়া প্রতিটি শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ের ক্ষেত্রে অভিভাবকদের মধ্যম পন্থা অবলম্বন করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত কিছু শিক্ষার্থী স্কুল ড্রেস ছাড়া স্কুলে উপস্থিত হচ্ছে। আগামী ১০ জুন ২০২২-এর পর কোনো শিক্ষার্থীকে স্কুল উইনিফর্ম ছাড়া স্কুলে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

মা আসসালামাহ,

এস.সি.ডি এডমিন

মেইন গেটে গার্ডকে আই.ডি কার্ড প্রদর্শন

আসসালামুআলাইকুম,

সম্মানীত অভিভাবকবৃন্দ, আগামী ২৪ মে ২০২২ থেকে নার্সারি – ৪র্থ শ্রেণির কোনো শিক্ষার্থীর অভিভাবক শিক্ষার্থীকে স্কুল থেকে নিয়ে যাওয়ার সময় মেইন গেটে কর্তব্যরত গার্ডকে আই.ডি কার্ড (স্টুডেন্ট কপি এবং অভিভাবক কপি) প্রদর্শন না করলে শিক্ষার্থীকে স্কুল গেটের বাইরে যেতে দেওয়া হবে না। কেউ ভুল করে আই.ডি. কার্ড (অভিভাবক কপি) না আনলে অফিসে যোগাযোগ করবেন। অফিস থেকে অভিভাবকের পরিচয় নিশ্চিত করলে মেইন গেটে কর্তব্যরত গার্ড উক্ত শিক্ষার্থীকে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিবে ইন-শা-আল্লাহ।

নিরাপত্তার স্বার্থে সকলের সহযোগিতা একান্ত কাম্য।

অনুরোধক্রমে

অধ্যক্ষ
এস.সি.ডি (মোহাম্মদপুর শাখা)