বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষা বাসায় গ্রহণ সংক্রান্ত নীতিমালা (২০২০)

আগামী ২৯ নভেম্বর ২০২০ থেকে বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, ইন-শা-আল্লাহ। মূল্যায়ন পরীক্ষাটি যদিও ঐচ্ছিক, তথাপি যারা এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন, তারা মূল্যায়ন পরীক্ষা আয়োজনের প্রতিটি পদক্ষেপ যথেষ্ট গুরুত্বের সাথে নিবেন বলে আশা করি।

নার্সারি, কেজি ও ১ম শ্রেণি

  • নার্সারি, কেজি ও ১ম শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের প্রশ্ন ও উত্তরপত্র আগামী ২৬-২৮ তারিখের মধ্যে স্কুল প্রাঙ্গন থেকে সংগ্রহ করতে হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য আলাদা খাম রাখা থাকবে।
  • অভিভাবকগন ২৯ নভেম্বর – ১০ ডিসেম্বর-এর মধ্যে সুবিধামত সময়ে মূল্যায়ন পরীক্ষার প্রশ্ন বের করে পরীক্ষা নিবেন।
  • পরীক্ষা শেষ হলে যত্ন করে খাতাগুলো বাসায় রেখে দিবেন, সব পরীক্ষা শেষ করে আগামী ১৩ ডিসেম্বর-এর মধ্যে সবগুলো খাতা ঐ একই খামে ভরে স্কুলে পৌছে দিবেন, ইন-শা-আল্লাহ।

২য় থেকে ১০ম শ্রেণী

  • ২য় শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণির মূল্যায়ন পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকগণ দিস্তা কাগজ কিনে পরীক্ষার খাতার মতো বানিয়ে নিবেন।
  • ৩য় শ্রেণি পর্যন্ত রুল করা কাগজে (বাংলা, ইংরেজি ও অংক এই তিনটি মূল্যায়ন পরীক্ষাই বাংলা খাতার মত রুল করা খাতায় নিতে হবে), ৪র্থ শ্রেণি থেকে সাদা কাগজে লিখবে। সবগুলো বিষয়ের মূল্যায়ন পরীক্ষার জন্য আগে থেকেই খাতা বানিয়ে রাখবেন। অতিরিক্ত কাগজ প্রয়োজন হলে, তা যেন হাতের কাছে থাকে খেয়াল রাখবেন।
  • উত্তরপত্রে শুরুতে অর্থাৎ, প্রথম পৃষ্ঠায় অবশ্যই এই তথ্যগুলো থাকতে হবে। এই তথ্যগুলো লেখার পর আড়াআড়ি (Horizontally) একটি দাগ দিতে হবে। তার নিচ থেকে উত্তর লেখা শুরু করতে হবে।
  • পরীক্ষার্থী যে স্থানে মূল্যায়ন পরীক্ষা দিবে; সে স্থানে তার কোনো বই, খাতা বা নোট থাকবে না। পরীক্ষা গ্রহণের স্থান আগেই নির্দিষ্ট করে প্রস্তুত রাখবেন। মনোযোগের ব্যাঘাত ঘটায় আশেপাশে এমন কোনো কিছু যেন না থাকে। 
  • প্রতিটি মূল্যায়ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র স্কুলের ওয়েবসাইটে দেওয়া হবে। পরীক্ষার দিন সকাল ৮:৩০ এ www.scdbd.org/anxm20 ঠিকানায় প্রতিটি পরীক্ষার প্রশ্ন প্রকাশ করা হবে।।
  • ২য়-১০ম শ্রেণির পরীক্ষার্থীরা যে ডিভাইস (কম্পিউটার/ল্যাপটপ/ট্যাব/মোবাইল) থেকে প্রশ্নপত্র দেখে পরীক্ষা দিবে, সেখানে যেন  ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ থাকে এবং কম্পিউটার/ল্যাপটপ যেন অটো-স্লিপ মোডে না থাকে – তা আগে থেকেই নিশ্চিত থাকবেন। বাসায় প্রিন্টার থাকলে প্রশ্ন প্রিন্ট করে দেয়া যাবে।
  • পরীক্ষার ঠিক ১৫ মিনিট পূর্বে উত্তরপত্র পরীক্ষার্থীর হাতে দিবেন এবং ঠিক ৯:০০ টায় প্রশ্নপত্র হাতে দিবেন অথবা ডিভাইসের স্ক্রিনে শিক্ষার্থীর সামনে ওপেন করে রাখবেন। 

মূল্যায়ন পরীক্ষার সময় করণীয়

  • বাসার অন্য কোনো সদস্য যেন পরীক্ষাগ্রহণের স্থানে উপস্থিত না থাকে তা নিশ্চিত করবেন। একজন অভিভাবক পরীক্ষক হিসেবে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে সেখানে উপস্থিত থাকবেন।
  • প্রয়োজনে পরীক্ষার্থীকে প্রশ্নপত্র বুঝিয়ে দিতে পারেন, তবে এমন কিছু বলে দেওয়া যাবে না – যা উত্তর বলে দেওয়ার সামিল। অর্থাৎ পরীক্ষার্থী না পারলেও তার ভালোর জন্যেই তাকে বলে দিয়ে সাহায্য করা যাবে না। কোনো ধরনের হিন্ট দেয়া থেকেও বিরত থাকতে হবে।
  • প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত সময়ের মাঝেই পরীক্ষা শেষ করতে হবে। এর মাঝে লেখা শেষ না হলেও অতিরিক্ত সময় দিবেন না। এক্ষেত্রে আমরা আশা করছি প্রত্যেকে তাকওয়া অবলম্বন করবেন।
  • নেটে সমস্যা/লোডশেডিং /যান্ত্রিক গোলযোগ ইত্যাদি কারণে প্রশ্নপত্র ডাউনলোড করতে সমস্যা হলে, যতক্ষণ পর পরীক্ষা শুরু করবেন, ঠিক তখন থেকেই হিসাব শুরু হবে। এক্ষেত্রে প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত সময়ের মাঝে শেষ করতে হবে। উদাহরনস্বরূপ: পরীক্ষার সময় ২ ঘন্টা। কোনো কারণে পরীক্ষা ৯:০০টার পরিবর্তে ৯:৪০ এ শুরু করলে অবশ্যই সেই পরীক্ষাটি ১১:৪০ এর মধ্যে শেষ করতে হবে।

উদাহরণস্বরূপ: যদি ৯-৯.৩০ পর্যন্ত নৈর্ব্যক্তিক আর ৯.৩০ থেকে সৃজনশীল শুরু করার কথা হয়, তাহলে নৈর্ব্যক্তিক আগে শেষ হয়ে গেলেও ঠিক ৯.৩০-এ সৃজনশীল শুরু করতে হবে

  • প্রশ্নে উল্লেখিত সময়ের মাঝে নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা শেষ করতে হবে। সময় শেষ হওয়ার আগে নৈর্ব্যক্তিক উত্তর দেওয়া শেষ হয়ে গেলেও পরবর্তী সৃজনশীল পরীক্ষা নির্ধারিত সময়ে শুরু করতে হবে।
  • রচনামূলক প্রশ্নের উত্তর লেখার পর পৃথক একটি পৃষ্ঠা থেকে নৈর্ব্যক্তিক-এর উত্তর লেখা শুরু করতে হবে। যেহেতু এবার বৃত্ত ভরাট করা যাচ্ছে না, তাই উত্তর দেয়ার জন্য প্রথমে প্রশ্নের নাম্বার এবং সঠিক উত্তরের সিরিয়াল লিখলেই চলবে ইন-শা-আল্লাহ। যেমন:

মূল্যায়ন পরীক্ষা-পরবর্তী করণীয়

  • পরীক্ষা গ্রহণের পর উত্তরপত্রের ছবি তুলে অথবা স্ক্যান করে ই-মেইলে এটাচ করে scdexams@gmail.com-এ পাঠাবেন। গুগল প্লেস্টোর থেকে যে কোনো পিডিএফ স্ক্যানার দিয়েই আপনারা এই কাজটি করতে পারবেন। তবে মূল্যায়ন পরীক্ষার খাতা স্ক্যান করে/ছবি তুলে পাঠানোর সময় অবশ্যই মনে রাখবেন যে একটি মূল্যায়ন পরীক্ষার খাতার সবগুলো পৃষ্ঠা যেন একটি পিডিএফ ফাইলে একত্র করে তারপর ই-মেইল করা হয়। প্রতিটি পৃষ্ঠার আলাদা আলাদা করে পিডিএফ পাঠানো থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। Adobe Scan এ্যাপটির সাহোয্যে কিভাবে এই কাজটি করবেন, তার একটি নমুনা নিচের ভিডিওতে দেওয়া হল।
  • যে দিন যে বিষয়ের পরীক্ষা হবে, ঐ দিন রাত ১২ টার মধ্যে উত্তরপত্র পাঠাতে হবে।
  • মূল্যায়নের সুবিধার্থে উত্তরপত্রের ছবি তুলে পাঠানোর সময় খেয়াল রাখবেন যেন সব লেখা স্পষ্ট বোঝা যায়। কম আলোতে ছবি তুলবেন না বা ছবি তোলার সময় হাতের বা মোবাইলের ছায়া যেন উত্তরপত্রের উপর না পড়ে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখবেন।
  • খেয়াল রাখবেন একই উত্তরের ছবি একাধিকবার যেন না পাঠানো হয়।
  • ছবি আপলোড করার সময় অবশ্যই ধারাবাহিকতা বজায় রাখবেন। অভিভাবক আগে থেকেই উত্তরপত্রে পৃষ্ঠা নাম্বারিং করবেন (খাতার মাঝ বরাবর নিচে) এবং সে অনুযায়ী পাঠাবেন।
  • উত্তরপত্র ছবি তুলে ই-মেইল করার সময় কোনো পৃষ্ঠা ভুলে বাদ পড়ে গেলে পরবর্তীতে তা গ্রহণ করা হবে না।

যে কোনো প্রয়োজনে কল করুন: 01705-679603,

WhatsApp: 01700 714 116

এস.সি.ডি এডিমন

স্কুল ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট